ডিহাইড্রেশন কি - ডিহাইড্রেশন কত প্রকার


ডিহাইড্রেশন কি? এ বিষয় সম্পর্কে জানতে চান? তাহলে সঠিক জায়গাতে এসেছেন। এই আর্টিকেলে ডিহাইড্রেশন কি? তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। আশা করি আপনি এখান থেকে ডিহাইড্রেশন কি? সে সম্পর্কে বিস্তারিত জ্ঞান অর্জন করতে পারবেন।

আপনি যদি ডিহাইড্রেশন কি? জানতে চান তাহলে সম্পূর্ণ আর্টিকেল মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে চলুন দেরি না করে ডিহাইড্রেশন কি? তা জেনে নেওয়া যাক।

পেজ সূচিপত্রঃ ডিহাইড্রেশন কি - ডিহাইড্রেশন কত প্রকার

ডিহাইড্রেশন কি?

ডিহাইড্রেশন কি? এ বিষয়টি সম্পর্কে আমরা অনেকেই জানিনা। আজকের এই আর্টিকেলে ডিহাইড্রেশন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। আপনি যদি ডিহাইড্রেশন অর্থাৎ পানি শূন্যতা সম্পর্কে না জেনে থাকেন তাহলে আজকের এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এই পোস্টে আমরা ডিহাইড্রেশন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। তাহলে চলুন ডিহাইড্রেশন কি? জেনে নেওয়া যাক।

আরো পড়ুনঃ সকালে ব্যায়াম করার 10 টি উপকারিতা - সকালে ব্যায়াম করার 10টি নিয়ম

শরীরের যদি পানি শূন্যতা বা পানির স্বল্পতা দেখা দেই তাহলে ডাক্তারি পরিভাষায় সেটাকে ডিহাইড্রেশন অর্থাৎ পানি শূন্যতা বলা হয়। একজন ব্যক্তির খুবই অল্প পরিমাণে পানি পান করেন তখন ব্যক্তির পানি শূন্যতা হতে পারে। কারণ আমাদের শরীর প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি গ্রহণ করে থাকে। আপনি যদি পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান না করেন তাহলে সেটিকে পানি শূন্যতা বলা হয়।

এছাড়া আরও বিভিন্ন রকম কারণে পানি শূন্যতা দেখা দিতে পারে যেমন অতিরিক্ত পরিমাণে ব্যায়াম করা, রোগ বা পরিবেশগত উচ্চ তাপমাত্রার কারণে পানি শূন্যতা দেখা দিতে পারে। বেশিরভাগ মানুষেরা দেহের পানি শূন্যতা তিন থেকে চার ভাগ পর্যন্ত সহ্য করতে পারে। শরীরের মোট পানির ১০ শতাংশেরও বেশি কমে গেলে তীব্র তৃষ্ণার সাথে শারীরিক ও মানসিক অবনতি ঘটতে পারে।

ডিহাইড্রেশন কত প্রকার

ডিহাইড্রেশন কত প্রকার? এ বিষয়টি সম্পর্কে অনেকেই জানতে চায়। আমরা যেহেতু আজকের এই আর্টিকেলে ডিহাইড্রেশন অর্থাৎ পানি শূন্যতা নিয়ে আলোচনা করছি সেহেতু আমাদের অবশ্যই ডিহাইড্রেশন কত প্রকার এই বিষয়টি সম্পর্কে ধারণা রাখতে হবে। তাহলে চলুন ডিহাইড্রেশন কত প্রকার? তা জেনে নেওয়া যাক।

  • Mild dehydration
  • Moderate dehydration
  • Severe dehydration
  • Isotonic dehydration
  • Hypertonic dehydration
  • Hypotonic dehydration

ডিহাইড্রেশন হলে কি হয়

ডিহাইড্রেশন হলে কি হয়? এ ধরনের প্রশ্ন অনেকে গুগলে করে থাকে। আমরা ইতিমধ্যে ডিহাইড্রেশন কি? এ বিষয়টি সম্পর্কে জেনেছি। ডিহাইড্রেশন হলে কি হয়? জানা থাকলে খুব সহজেই আমরা এখান থেকে মুক্তি পেতে পারি। তাহলে চলুন ডিহাইড্রেশন হলে কি হয়? বিষয়গুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

ডিহাইড্রেশন অর্থাৎ পানি শূন্যতা এর প্রধান বৈশিষ্ট্য হলো অতিরিক্ত পরিমাণে তৃষ্ণা পাওয়া। এছাড়া ডিহাইড্রেশন এর লক্ষণগুলোর মধ্যে রয়েছে স্নায়বিক পরিবর্তন যেমন মাথাব্যথা, অস্বস্তি লাগা, ক্ষুধা কমে যাওয়া, প্রসাবের পরিমাণে কমে যাওয়া, ক্লান্ত লাগা ইত্যাদি। পানিসূন্যতার লক্ষণ গুলো দেহের বৃহত্তর পানি কমে যাওয়ার ক্রমশই তীব্র হয়ে ওঠে।

শরীরের ডিহাইড্রেশন সমস্যা থাকলে আপনার মধ্যে বেশ কিছু উপসর্গ দেখা দেবে। এগুলোর মধ্যে মাথা ব্যথা বারবার গলা ও মুখ শুকিয়ে যাওয়া, অতিরিক্ত পরিমাণে পানি পিপাসা লাগা মেজাজ খিচখিটে হয়ে যাওয়া মাংসপেশিতে টান ধরা, চামড়া শক্ত হয়ে যাওয়া চোখের দৃষ্টিশক্তি সমস্যা দেখা দেওয়া ইত্যাদি। এছাড়া শরীরে পানির ঘাটতি থাকলে আপনার ঠোঁট সুস্থ হয়ে ফেটে যেতে পারে।

ত্বকে দেখা দিতে পারে ব্রণের সমস্যা। সে সঙ্গে প্রসাবের রং হলুদ হয়ে যেতে পারে। পানি আমাদের মুখের ব্যাকটেরিয়া গুলোকে নিয়ন্ত্রণ করে। কিন্তু আপনি যদি পানি কম খেয়ে থাকেন তাহলে ব্যাকটেরিয়া গুলোকে নিয়ন্ত্রণের অভাবে আপনার মুখে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হতে পারে। সাধারণত ডিহাইড্রেশন হলে এই সমস্যাগুলো দেখা যাইতে পারে।

ডিহাইড্রেশন এর লক্ষণ - পানিশূন্যতার লক্ষণ কি

ডিহাইড্রেশন এর লক্ষণ এখন আমরা জানবো। ইতিমধ্যে ডিহাইড্রেশন অর্থাৎ পানি শূন্যতা সম্পর্কে বেশ কিছু আলোচনা করেছি। এখন আপনাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় পানিশূন্যতার লক্ষণ কি? এ বিষয় সম্পর্কে ধারণা নেওয়া। আজকের এই আর্টিকেলে আমরা ডিহাইড্রেশন এর লক্ষণ অর্থাৎ পানিশূন্যতা লক্ষণ কি? চলুন জেনে নেই।

আরো পড়ুনঃ ১৫ টি উপায়ে যেভাবে লম্বা হওয়া যায় - দ্রুত লম্বা হওয়ার উপায়

১। শরীরে পানি শূন্যতা দেখা দিলে অতিরিক্ত পরিমাণে পানি পিপাসা লাগে।

২। ডিহাইড্রেশন দেখা দিলে মুখ শুকিয়ে যায়।

৩। পানি শূন্যতার অন্যতম একটি লক্ষণ হল মাথা যন্ত্রণা করা।

৪। ডিহাইড্রেশনের অন্যতম আরো একটি লক্ষণ হলো মেজাজ খারাপ হয়ে যাওয়া।

৫। পানি শূন্যতা দেখা দিলে দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে যায়।

৬। পানি শূন্যতা দেখা দিলে মাংসপেশিতে টান ধরে।

৭। চামড়া শক্ত হয়ে যাওয়া ডিহাইড্রেশন এর অন্যতম লক্ষণ

৮। বারবার মিষ্টি খেতে চাওয়া ডিহাইড্রেশন এর লক্ষণ।

ডিহাইড্রেশন কেন হয়

প্রিয় বন্ধুরা আপনার আশা করি আপনার ডিহাইড্রেশন কি? এ বিষয় সম্পর্কে জানতে পেরেছেন আমাদের এই আর্টিকেল থেকে। এখন আমরা ডিহাইড্রেশন কেন হয়? এ বিষয়টি সম্পর্কে আলোচনা করব। আপনি যদি ডিহাইড্রেশন সম্পর্কে সামান্যতম ধারণা রাখেন তাহলে অবশ্যই আপনার ডিহাইড্রেশন কেন হয়? বিষয়টি সম্পর্কে জানা জরুরী।

ডিহাইড্রেশন এর অন্যতম কারণ হলো অতিরিক্ত পরিমাণে ব্যায়াম করা। আমরা যারা অতিরিক্ত পরিমাণে ব্যায়াম করি সাধারণত তারা অতিরিক্ত পরিমাণে পানি পান করে থাকি কিন্তু কোন সময় পানি পান না করলে তার শরীরের ডিহাইড্রেশন দেখা দেয়।

এ ছাড়া ডায়রিয়া হলে শরীরে ডিহাইড্রেশন দেখা দেয়। অতিরিক্ত পরিমাণে বমি হলে শরীরে ডিহাইড্রেশন দেখা দেয়। অতিরিক্ত পরিমাণে ঘাম হলে শরীরের পানি শূন্যতা হয়ে থাকে। গরম আবহাওয়ায় পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান না করলে পানি শূন্যতা হয়ে থাকে।

ডিহাইড্রেশন চিকিৎসা

যদি আপনার কখনো ডিহাইড্রেশন অর্থাৎ পানি শূন্যতা দেখা যায় তাহলে ডিহাইড্রেশন চিকিৎসা সম্পর্কে জেনে রাখা অত্যন্ত জরুরি। উপরের আলোচনায় আমরা ডিহাইড্রেশন কি? এছাড়া ডিহাইড্রেশন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। এখন ডিহাইড্রেশন চিকিৎসা সম্পর্কে আলোচনা করব। তাহলে চলুন ডিহাইড্রেশন চিকিৎসা সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

লেবুর পানিঃ আপনার যদি অতিরিক্ত পরিমাণে গরম লেগে থাকে এবং আপনার শরীরে পানি শূন্যতার লক্ষণ গুলো দেখা দেয় তাহলে খুব তাড়াতাড়ি এক গ্লাস লেবু পানি খেয়ে নিতে পারেন। এতে আপনার পানি শূন্যতা অনেকটাই কমে যাবে।

ডাবের পানি খেতে পারেনঃ পানি শূন্যতা দূর করতে ডাবের পানি খুবই উপকারী। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে সোডিয়াম ও পটাশিয়াম এটা শরীরের মিনারেল ঘাটতি দূর করতে সাহায্য করে।

আরো পড়ুনঃ মাসিকের ব্যথা কমানোর 5টি উপায় - মাসিকের ব্যথা কমানোর 4টি ওষুধ

এলোভেরা জুসঃ এলোভেরাতে প্রচুর পরিমাণে পানি থাকে। শরীরে যদি আপনার পানি শূন্যতা দেখা যায় তাহলে অ্যালোভেরার জুস করে খেতে পারেন। এটি আপনার শরীরে পানির শূন্যতা নিমেষেই দূর করতে সাহায্য করবে।

হারবাল চাঃ আপনি যদি পানি শূন্যতা থেকে রেহাই পেতে চান তাহলে হারবাল যা আপনার শরীরের পানি সুন্দর দূর করতে সাহায্য করবে। তাই অবশ্যই পানি শূন্যতা দেখা দিলে হার্বাল চা খেতে পারেন।

ডিহাইড্রেশন কি - ডিহাইড্রেশন কত প্রকারঃ শেষ কথা

ডিহাইড্রেশন কি? ডিহাইড্রেশন কত প্রকার? ডিহাইড্রেশন চিকিৎসা, ডিহাইড্রেশন কেন হয়? ডিহাইড্রেশন এর লক্ষণ, পানিশূন্যতার লক্ষণ কি? ডিহাইড্রেশন হলে কি হয়? এ বিষয়গুলো বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। আশা করি আপনারা উক্ত বিষয়গুলো সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। এরকম আর্টিকেল আরো পড়তে নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইট ফলো করুন। ১৬৮৩০

Popular posts from this blog

যৌন শক্তি বৃদ্ধির দোয়া - শারীরিক শক্তি বৃদ্ধির দোয়া

কি খেলে বীর্য অনেক ঘন হয় এবং দ্রুত বীর্য পাত বন্ধ হয়?

গণতন্ত্রের সুফল ও কুফল - গণতন্ত্রের বৈশিষ্ট্য