রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়ম


 

বর্তমান সময়ে মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবস্থার মধ্যে রকেট অন্যতম একটি। আমরা অনেকেই রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চায়। রকেট স্যালারি একাউন্ট এর মাধ্যমে স্যালারি গ্রহণ করার জন্য আমাদেরকে রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে জানতে হবে। আপনাদের সুবিধার্থে রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়ম নিচে উল্লেখ করা হলো।

আপনি যদি রকেট স্যালারি একাউন্ট খুলতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে জানতে হবে। তাহলে চলুন দেরি না করে রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

পেজ সূচিপত্রঃ রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়ম

রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়মঃ ভূমিকা

বাংলাদেশের মোবাইল ব্যাংকিং জগতে ডাচ বাংলা ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিং হচ্ছে প্রথম সারির নাম। যার বর্তমান নাম হচ্ছে রকেট। সাধারণত এটি ডাচ-বাংলা ব্যাংকের অধীনে পরিচালিত হয়। আমরা অনেকেই চাকরির স্যালারি নেওয়ার জন্য স্যালারি একাউন্ট ব্যবহার করে থাকি। রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়ম জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ আমাদের জন্য।

আরো পড়ুনঃ বাংলা আর্টিকেল লিখে আয় পেমেন্ট বিকাশে মাসে ১৫০০০

আজকের এই আর্টিকেলে রকেট স্যালারি একাউন্ট কাকে বলে? স্যালারি একাউন্ট ইন্টারেস্ট রেট, রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার সুবিধা সমূহ এবং রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব।

রকেট স্যালারি একাউন্ট কাকে বলে

বর্তমানে বাংলাদেশের সব থেকে জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবস্থা হল রকেট। রকেটে ক্যাশ আউট খরচ অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং এর তুলনায় অনেক কম হয়ে থাকে তাই বাংলাদেশের অনেক মানুষ এখন রকেট একাউন্ট ব্যবহার করে তাদের লেনদেন করে থাকে। রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে জানার আগে রকেট স্যালারি একাউন্ট কাকে বলে? তা জানতে হবে।

মোবাইলের মাধ্যমে একই স্থান থেকে অন্য স্থানে টাকার লেনদেন করাকেই মোবাইল ব্যাংকিং বলা হয়। রকেট স্যালারি একাউন্ট এর মাধ্যমে আপনি আপনার চাকরির প্রতি মাসের টাকা গ্রহণ করতে পারবেন। অনেক সময় আমাদের চাকরির বেতনের টাকার জন্য অনেক ভোগান্তি পোহাতে হয়। আপনার যদি রকেট স্যালারি একাউন্ট থাকে তাহলে খুব সহজে কোন রকম ভোগান্তি ছাড়াই টাকা আপনার একাউন্টে চলে আসবে।

স্যালারি একাউন্ট বার্ষিক চার্জ

স্যালারি একাউন্ট খোলার আগে আমাদেরকে স্যালারি একাউন্ট বার্ষিক চার্জ সম্পর্কে জানতে হবে। বছরে কোন একাউন্টে কত টাকা চার্জ কাটা হয় এ বিষয়গুলো অ্যাকাউন্ট খোলার আগেই জেনে রাখা উচিত। স্যালারি একাউন্ট বার্ষিক চার্জগুলো নিচে উল্লেখ করা হলো।

১। ১০ হাজার টাকার অধিক এবং ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত রাখলে সে ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ১০০ টাকা চার্জ কাটা হয়।

২। ২৫ হাজার টাকার অধিক দুই লক্ষ টাকা গড় আমানত এর ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ২০০ টাকা চার্জ কাটা হয়।

৩। ২ লক্ষ টাকার অধিক ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত রাখলে গড় আমানত স্থিতির ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ২৫০ টাকা চার্জ কাটা হয়।

৪। আপনি যদি ১০ লক্ষ টাকার অধিক রাখেন তাহলে আপনার সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা চার্জ কাটা হবে।

রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়ম

আমরা অনেকেই আমাদের চাকরির বেতনের টাকা রকেট স্যালারি একাউন্ট এর মাধ্যমে নিতে চাই যার ফলে আমাদেরকে রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে জানতে হয়। আমরা যদি রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়ম জানতে পারি তাহলে খুব সহজেই বাড়িতে বসেই নিজের একাউন্ট খুলতে পারবো।

আরো পড়ুনঃ ২০ টি উপায়ে মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম পেমেন্ট বিকাশে

১। আপনি অ্যাপের মাধ্যমে রকেট একাউন্ট খুলতে পারেন। এর জন্য আপনাকে প্রথমে প্লে স্টোর থেকে রকেট অ্যাপ ডাউনলোড করে নিতে হবে। এরপর ভাষা নির্বাচন করে আপনি যদি নতুন অ্যাকাউন্ট খুলতে চান তাহলে "হ্যাঁ" লেখার উপর ক্লিক করতে হবে। এরপর আপনার মোবাইল নাম্বার দিতে হবে।

২। আপনি যেই সিমে আপনার একাউন্টটি চালু করতে চান অবশ্যই সেই সিমের অপারেটর কোনটি সেটি সিলেক্ট করতে হবে। এর পরে আপনার কাছে একটি কোড আসবে মেসেজের মাধ্যমে আসতে পারে অথবা আপনাকে কল করার মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে।

৩। এরপরে প্রথম কি প্যাড বাটনে ক্লিক করুন এবং পরে পিন কোড টাইপ করতে হবে। প্রথম ঘরে আপনার ফোন নাম্বার থাকবে এবং দ্বিতীয় ঘরে সিকিউরিটি কোড অর্থাৎ আপনি এসএমএসে যেটি পাবেন সেটি বসাতে হবে।

৪। পরবর্তী স্টেপে কিছুক্ষণ আগে ফোন কলের মাধ্যমে পিন কোডটি সেট করেছিলেন সেই ৪ ডিজিটের পিন কোড এখানে ভেরিফাই করতে হবে। এর পরবর্তী পেজে আপনার পিন নাম্বার টাইপ করে লগইন ক্লিক করতে হবে।

৫। যদি আপনার একাউন্ট সফলভাবে লগইন হয় তাহলে একাউন্টের উপরের দিকে update your KYC লেখা দেখতে পাবেন। এর উপর ক্লিক করতে হবে। এবং কিছু শর্ত আপনাকে বলা হবে আপনি চাইলে পড়ে নিতে পারবেন এরপর সম্মতি লেখার উপরে ক্লিক করে নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন।

৬। এরপরে Take your NID photo নামে একটি পেজ পাবেন। সেই পেজের প্রথম বক্সে আপনার এনআইডি কার্ডের উপরের অংশের ছবি স্ক্যান করে দিতে হবে এবং নিচের অংশে এনআইডি কার্ডের পেছনের অংশ স্ক্যান করে তুলতে হবে।

৭। এর পরবর্তী পেজে আপনাকে কিছু ব্যক্তিগত তথ্য দিতে হবে যেমন আপনি পুরুষ না মহিলা? আপনি কি বিবাহিত না অবিবাহিত সবকিছু তথ্য প্রদান করতে হবে।

রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার সুবিধা সমূহ

রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার অনেকগুলো সুবিধা রয়েছে। বর্তমান সময়ে সবথেকে জনপ্রিয় একটি মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবস্থা হল রকেট। বিশেষ করে আমরা অনেকেই আমাদের চাকরির বেতন নিয়ে অনেক ঝামেলার মধ্যে পড়ে যায়। মাসের বেতন উঠানোর জন্য প্রতিষ্ঠানে যেতে হয়। কিন্তু আপনি যদি রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলেন তাহলে খুব সহজেই আপনার স্যালারি নিতে পারবেন।

এছাড়া আপনি যে কোন সময় আপনার একাউন্টে থাকা ব্যালেন্সগুলো লেনদেন করতে পারবেন। রিয়েল টাইম অনলাইন ব্যাংকিং সুবিধা প্রদান করছে ডাচ বাংলা ব্যাংক অর্থাৎ মোবাইল ব্যাংকিং রকেট। রকেট ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি ক্যাশ ইন, ক্যাশ আউট কাস্টমার রেজিস্ট্রেশন সহ রিয়েল টাইম অনলাইন সুবিধাগুলো উপভোগ করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ আল আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম

নিরাপদ ভাবে অর্থ লেনদেন করতে পারবেন। অনেক সময় বিভিন্ন অ্যাকাউন্টে আমাদের টাকা হারিয়ে যাওয়ার একটি সম্ভাবনা থাকে। ডাচ বাংলা ব্যাংক এর লেনদেন ব্যবস্থা ব্যবহার করে রকেট এর মাধ্যমে আপনি লেনদেনের ব্যবস্থা সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারবেন।

রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়মঃ শেষ কথা

রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার নিয়ম, রকেট স্যালারি একাউন্ট খোলার সুবিধা সমূহ, রকেট স্যালারি একাউন্ট কাকে বলে? এ বিষয়গুলো বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। আশা করি আপনি উক্ত বিষয়গুলো সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। একাউন্ট খোলার আগে অবশ্যই বিস্তারিতভাবে উক্ত বিষয়গুলো জেনে নিন।

এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। এরকম গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেল আরো পড়তে নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইট ফলো করুন। ১৬৮৩০

Popular posts from this blog

যৌন শক্তি বৃদ্ধির দোয়া - শারীরিক শক্তি বৃদ্ধির দোয়া

কি খেলে বীর্য অনেক ঘন হয় এবং দ্রুত বীর্য পাত বন্ধ হয়?

গণতন্ত্রের সুফল ও কুফল - গণতন্ত্রের বৈশিষ্ট্য