নিপলে ব্যাথা হওয়ার কারণ - মেয়েদের দুধের বোটা ব্যথা হওয়ার কারণ


আপনারা কি নিপলে ব্যাথা হওয়ার কারণ ও মেয়েদের দুধের বোটা ব্যথা হওয়ার কারণ সম্পর্কে জানেন? আমরা আজকাল আলোচনা করব নিপলে ব্যাথা হওয়ার কারণ সম্পর্কে। নিপলে ব্যাথা হওয়ার কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে আপনারা আমাদের পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

নারীদের স্তনে ব্যথা হওয়ার প্রক্রিয়াটি খুবই স্বাভাবিক। আমাদের স্তনে ব্যথা হলে আমরা অনেক সময় ভয় পেয়ে যায়। কিন্তু সঠিক সময়ে চিকিৎসা নিলে এখান থেকে ফিরে আসা সম্ভব। নিপলে ব্যাথা হওয়ার কারণ আর্টিকেলটিকে এই সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব।

পোস্ট সূচিপত্র : নিপলে ব্যাথা হওয়ার কারণ - মেয়েদের দুধের বোটা ব্যথা হওয়ার কারণ

মেয়েদের দুধ ব্যথা হওয়ার কারণ কি 

অনেকের প্রশ্ন মেয়েদের দুধ ব্যথা হওয়ার কারণ কি? সাধারণত মেয়েরা মাঝেমধ্যেই স্তনে ব্যথা অনুভব করে থাকে। অনেকেই ভেবে থাকেন এটি হয়তো ক্যান্সারের লক্ষণ। কিন্তু এক্ষেত্রে আতঙ্কিত হবেন না।কারণ ক্যান্সার এর সাথে,এর তেমন কোন সম্পর্ক নেই। স্তনে ব্যথা অনুভূত হয় সাধারণত হরমোনের পরিবর্তনের কারণে। 

আরো পড়ুন টিউমার ভালো করার ৯ টি উপায় - টিউমার প্রতিরোধের উপায়

  • কিশোরীদের মাসিকের সময়ে এই ব্যথা হতে পারে। আবার অনেক সময় পিরিয়ড হওয়ার আগে বা পরেও দেহে হরমোনের পরিবর্তন হওয়ার কারণে ও এই ব্যথা হয়। তাই ভয়ের কোন কারণ নেই।
  • সন্তানকে দুধ পান করার সময়ও অনেক নারীদের স্তনে ব্যথা হয়। স্তন পান করার আগে এবং পরে ধুয়ে নিতে হবে না হলে বিভিন্ন ব্যাকটেরিয়া বা ভাইরাস অথবা ফাঙ্গাস হওয়ার আশঙ্কা থাকে যার জন্য স্তনে ঘা হয়ে যায়। ফলস্বরূপ স্তনে ব্যথা হয়।
  • গর্ভকালীন সময়ও নারীর স্তনে ব্যথা হতে পারে। গর্ভাবস্থার তিন মাস চলাকালীন সময়ে এই ব্যথা বেশি হয়ে থাকে।

এই ধরনের সমস্যা হলে চিকিৎসকের কাছে যাওয়া উচিত। মনে রাখবেন বুকে ব্যথা হওয়ার মারাত্মক কারণ হচ্ছে স্তন ক্যান্সার। ক্যান্সারের কারণে ব্যথা হলে এই ব্যথাটি অবিরত হতেই থাকবে।

ব্রেস্ট নিপল ব্যথা  

ব্রেস্ট নিপল ব্যথা দুগ্ধ দানকারী নারীদের কমন একটি সমস্যা। যদিও এটি একটি সমস্যা, তবে স্তন্যপান করানোর ক্ষেত্রে কোন কঠিন সমস্যা তৈরি করে না। শিশু জন্মের কয়েকদিন পরে যখন মায়ের দুধ খেতে শুরু করে তখন নতুন মায়েদের ক্ষেত্রে স্তন বৃত্তে ব্যথা হওয়া কোন অস্বাভাবিক বিষয় নয়।আবার বাচ্চা স্তন পান করা শুরু করার কয়েক সপ্তাহ পরে বা এক মাসের মধ্যেও এই ব্যথা অনুভূত হতে পারে।

বাচ্চা যখন দুধ খেতে শুরু করেছে তার কয়েক সেকেন্ড বা কয়েক মিনিট পর থেকে স্তনবৃন্তে ব্যথা হতে পারে। কিন্তু মনে রাখবেন এর থেকে বেশি ব্যথা হলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে। এখানে অনেক সময় কঠিন সমস্যা তৈরি হয় যেমন স্তনবৃন্দ ফুলে গিয়ে রক্তপাত বা ফেটে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। মাসিকের সময় অনেক মেয়েদের স্তন বৃন্তে ব্যথা হয়ে থাকে।

ব্রেস্টে ব্যথা হলে করণীয়  

আমরা অনেক সময় ব্রেস্টে ব্যথা অনুভব করে থাকি। আবার অনেক সময় সকালে ঘুম থেকে উঠেও ব্রেস্টে ব্যথা অনুভূত হয়। ব্রেস্টে ব্যথা হলে করণীয় সম্পর্কে জানতে পোস্টটি পড়তে থাকুন। আপনার লাইফ স্টাইল পরিবর্তন এর মাধ্যমে ব্রেস্টে ব্যথা কমিয়ে আনা সম্ভব । 
  • স্তনে ব্যথা হলে ভিটামিন বি৬, ভিটামিন বি১ (থায়ামিন) এবং ভিটামিন ই সমৃদ্ধ খাবার গ্রহণ করতে হবে।
  • সেই সব খাবার গ্রহণ করুন যাতে চর্বি কম এবং পুষ্টি বেশি থাকে।
  • বাহিরের কোন খাবার গ্রহণ করবেন না।
  • স্তনের মাপ অনুযায়ী ব্রা পরতে হবে। স্তনের চেয়ে ছোট মাপের ব্রা কোন মতেই পরবেন না।
  • দেহের ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখুন। এতে করে হরমোন পরিবর্তনের সমস্যা দূর হবে।

ডান ব্রেস্ট ব্যাথার কারন  

ডান ব্রেস্ট ব্যাথার কারন সম্পর্কে আমরা তেমন কিছু জানি না। মেয়েদের স্তনে ব্যথা অনেক সময় স্বাভাবিক কিছু কারণে হয়ে থাকে আবার কখনো কখনো অস্বাভাবিক কারণেও হয়ে থাকে। স্বাভাবিক কিছু কারণ যেমন মেয়েদের পিরিয়ড হলে এই সমস্যাটি হয়ে থাকে আবার স্তন পান করানোর জন্য স্তনে ব্যথা হয়ে থাকে। এছাড়াও স্তনে টিউমার বা ফোড়া হলে এই সমস্যাটি হয়ে থাকে। 

আপনি নিজে নিজেও চেক করতে পারেন আপনার স্তনে চাপ দিয়ে খেয়াল করে দেখুন স্তনে কোন রকমের শক্ত বা দলা চাকা বোঝা যায় কিনা। আবার খেয়াল করুন স্তনের কোন রং পরিবর্তন হয়েছে কিনা বা ফুসকুড়ি উঠেছে কিনা। যদি এরূপ কোন সমস্যা হয়ে থাকে তাহলে একজন গাইনি বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিতে পারেন। যদি এমন কিছু না হয়ে থাকে তাহলে ডান স্তনের একটি মেমোগ্রাম টেস্ট করে রিপোর্ট ডাক্তারকে দেখাতে পারেন। 

নিপলে ঘা হলে করণীয়

বন্ধুরা নিপলে ব্যাথা হওয়ার কারণ সম্পর্কে ইতিমধ্যে আমরা আলোচনা করেছি। এবারে আমরা আলোচনা করব নিপলে ঘা হলে করণীয় কি সম্পর্কে। নিপলে ঘা, ব্যথা, ইনফেকশন বিভিন্ন কারণে হয়ে থাকে। এগুলো দেখা যায় কখনো কখনো একটি স্তনে হয় আবার কখনো দুটি স্তনেই দেখা যায়। স্তনে যদি ইনফেকশন হয় তাহলে প্রাথমিক অবস্থায় লাল ভাব, ব্যাথা, চুলকানি, ফুসকুড়ি ইত্যাদি দেখা যায়। এমন অবস্থায় ঘরোয়া ভাবে কিছু চিকিৎসা নিলে বাসাতেই এই সমস্যার সমাধান করতে পারবেন। যেমন
  • আপনার আক্রান্ত স্তনকে খোলা ভাব দূর করতে প্রতিদিন ক্যাস্টর অয়েল বা জলপাইয়ের তেল আঙ্গুলের সাহায্যে আক্রান্ত স্থানে এবং আশপাশে ম্যাসেজ করুন। 
  • এ্যালোভেরা জেল এ ক্ষেত্রে ভালো কাজ দেয়। সরাসরি অ্যালোভেরা জেল আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। বারবার করার ফলে আপনার আক্রান্ত স্থান বা ক্ষতস্থান শুকিয়ে যাবে।
  • বাঁধাকপির পাতার সাহায্যে ব্রেস্ট ইনফেকশন দূর করা সম্ভব। এটি স্তনের ফোলা ভাব এবং জ্বালাপোড়া দূর করে। কয়েকটি বাঁধাকপির পাতা ফ্রিজে ৩০ মিনিটের জন্য রেখে দিন। এরপর বের করে আক্রান্ত স্তনে রাখুন। পাতার তাপমাত্রা নরমাল হয়ে গেলে এটি সরিয়ে নিন এবং আরেকটি ঠান্ডা পাতা আক্রান্ত স্তনে রাখুন। এটি যতবার ইচ্ছা আপনি করতে পারেন ভালো উপকার পাবেন। 
  • কয়েকটি গাঁদা ফুল এবং ৭ থেকে ১০ ফোঁটা কম্ফ্রো তেল দিয়ে একসাথে মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্টটি গরম করুন এবং আক্রান্ত স্থানে ১৫ থেকে ২০ মিনিট লাগিয়ে রাখুন।তারপর গরম কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন। 
উক্ত ঘরোয়া পদ্ধতিগুলো ব্যবহার করেও যদি কোন উপকার না পান তাহলে দেরি না করে অবশ্যই ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন এবং চিকিৎসা নিন।

প্রিয় পাঠক আশা করছি আমাদের আজকের নিপলে ব্যাথা হওয়ার কারণ ও মেয়েদের দুধের বোটা ব্যথা হওয়ার কারণ আর্টিকেলটি আপনাদের অনেক ভালো লেগেছে। অন্যদের জানার সুবিধার্থে নিপলে ব্যথা হওয়ার কারণ আর্টিকেলটি শেয়ার করুন। নিপলে ব্যাথা হওয়ার কারণ এই ধরনের আরো নিত্য নতুন আর্টিকেল আমাদের ওয়েবসাইট থেকে নিয়মিত পোস্ট করা হয়। পোস্টগুলো নিয়মিত পড়লে অনেক উপকৃত হবেন বলে আশা করি। আজকের মত বিদায় নিচ্ছি। সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন।আল্লাহ হাফেজ। ২৩২৬১

Popular posts from this blog

যৌন শক্তি বৃদ্ধির দোয়া - শারীরিক শক্তি বৃদ্ধির দোয়া

কি খেলে বীর্য অনেক ঘন হয় এবং দ্রুত বীর্য পাত বন্ধ হয়?

গণতন্ত্রের সুফল ও কুফল - গণতন্ত্রের বৈশিষ্ট্য